কৃষি ও কৃষক

0

অন্যান্য মৌসুমের তুলনায় শীতকালে বিভিন্ন রকম শাক-সবজীর চাষ বেশি হয়ে থাকে। আর কৃষকরাও সময়টাকে কাজে লাগিয়ে শাক-সবজী চাষে ব্যস্ত হয়ে পড়ে। এবারের ‘কৃষি ও কৃষক’ অনুষ্ঠানে কথা হয় চরফ্যাশনের আব্দুল্লাপুর এলাকার আবু তাহেরর সাথে। তিনি লালশাকসহ লাউ, টমেটো, বেগুন এবং করলার চাষ করেছেন। তিনি বলেন পুষ্টিকর এই শাক-সবজী চাষে ব্যাপক পরিশ্রম করতে হয়। আর সে পরিশ্রম অনুযায়ী ভালো ফলন ও লাভের ভাগ অনেকটাই কম। এর কারণ হিসেবে তিনি জানান, ফসলে দিন দিন রোগ বালাই এবং পোকার আক্রমণ বাড়ছে। আর এসব রোগ-বালাই এবং পোকার আক্রমণ দমন করতে সঠিক পদ্ধতি ও পরিচর্যা সম্পর্কে না জানার কারণে অনেক সময় লোকসান গুনতে হয় তাদের।

এদিকে কৃষকদের এমন নানা সমস্যা নিয়ে কথা হয় চরফ্যাসন উপজেলা সহকারি কৃষি কর্মকর্তা ছানাউল্লাহ আযমের সাথে। তিনি বলেন এখন যে শাক-সবজি রয়েছে তা এক-দুইবার বিক্রির পর সৌন্দর্য নষ্ট হয়ে যেতে পারে। সে ক্ষেত্রে পাতা নষ্ট হলে জৈব সার প্রয়োগ করতে হবে। সিমের পোকা দমনের জন্য ঘরোয়া ভাবে পদক্ষেপ নিতে পারে, পুরোনো ছাইয়ের সাথে কেরোসিন মিশিয়ে ব্যাবহার করা যেতে পারে। অতিরিক্ত কীটনাশক ব্যাবহার করলে সবজির পুষ্টিমান নষ্ট হয় তাই কীটনাশক ব্যাবহারের প্রতি সাবধান হতে হবে।

অনুষ্ঠানটি প্রচারিত হয়েছে ২১ নভেম্বর, (বুধবার) সকাল ৯.২০ টায়। শুধুমাত্র রেডিও মেঘনা ৯৯.০ এফএম-এ।

প্রযোজনা এবং সাক্ষাৎকারে ছিলেন নিশি মনি, উপস্থাপনায় শান্তা।

Share.

Leave A Reply