মা আমার মা

0

পাঁচ মেয়ে এক ছেলে সন্তানের জননী চরফ্যাশনের ৫০ বছর বয়সী রহিমা বেগম। স্বামী ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়ার পর ছয় সন্তানের ভরণপোষণসহ পুরো সংসারের দায়িত্ব পড়ে এই মানুষটির উপর। স্বামীকে হারিয়ে অনেকটাই দিশেহারা হয়ে পড়েন তিনি। কিন্তু জীবন সংগ্রামে হার না মেনে সন্তানদের মানুষের মত মানুষ করার প্রচেষ্ঠায় হয়ে উঠেন পরিশ্রমী। স্বামীর পরিবারে অর্থ-সম্পদ না থাকায় অন্যের বাড়ি বাড়ি কাজ করেন তিনি। শুধু তাই নয় শক্তি-সামর্থে যখন যে কাজ পেতেন তখন সেই কাজ করেই ছেলে মেয়েদের লালন পালন করছেন রহিমা বেগম। এত প্রতিবন্ধকতার মধ্যেও নিজে ছেঁড়া কাপড় ও ছেঁড়া জুতা পায়ে থাকলেও সন্তানদের ভালো রাখার প্রতিশ্রুতি ছিলো এই মায়ের। চার মেয়ে ও ছেলেকে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত লেখাপড়া শিখিয়েছেন। বর্তমানে মায়ের সাথে বিভিন্ন কাজে সহযোগিতা করছে তারা। আর সব ছোট মেয়ে পড়ছে নবম শ্রেণিতে। স্বপ্ন এখন এই মেয়েকে নিয়ে, উচ্চ ডিগ্রী অর্জন করে ভালো চাকরী করবে মায়ের মুখ উজ্জ্বল করবে। এই স্বপ্ন বাস্তবায়নে অক্লান্ত পরিশ্রম করছেন রহিমা বেগম। তার মত সকল মায়ের এমন স্বপ্ন পূরণ হোক এই প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন তিনি।

‘মা আমার মা’ এই অনুষ্ঠানটি প্রচারিত হয়েছে ২ জানুয়ারি (বুধবার) বিকেল ৫.৪০টায়। শুধুমাত্র রেডিও মেঘনা ৯৯.০ এফএম এ।
উপস্থাপনায় শান্তা এবং প্রযোজনায় নিশি মনি

Share.

Leave A Reply