ডাক্তার সংকটে চরফ্যাসন হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা ব্যাহত, রোগীদের চরম ভোগান্তী

0

ডাক্তার সংকটে চরফ্যাসন হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা ব্যাহত, রোগীদের চরম ভোগান্তী

চরফ্যাসন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি দীর্ঘদিন ধরে জনবল সংকটে রয়েছে। এ অবস্থায় উপজেলার বিভিন্ন এলাকার রোগীদের হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে এসে চরম ভোগান্তী পোহাতে হচ্ছে। চিকিৎসা নিতে আসা নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক রোগীর স্বজন এবং একজন হাসপাতাল স্টাফ জানান, হাসপাতালে পর্যাপ্ত ডাক্তার না থাকায় প্রতিনিয়ত হাসপাতালে এসে রোগীদের ফিরে যেতে হচ্ছে। যে কজন ডাক্তার আছেন তারাও বিভিন্ন কাজে বাহিরে কিংবা ছুটিতে থাকলে ভোগান্তী আরো চরমে উঠে। তাই তারা দাবী করেন, যত দ্রুত সম্ভব শূণ্য পদের ডাক্তার আনার ব্যবস্থা করা।

চরফ্যাসনের একমাত্র সরকারি এই ৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল নতুন ভবন র্নিমাণ কাজ শেষ না হওয়াায় পরিবেশ বিপর্যয়েও পড়তে হয় সকলকে। তবে হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে এখন ২০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে সহকারী সার্জন, মেডিক্যাল অফিসার, ডেন্টাল সার্জন, বিশেজ্ঞ চিকিৎসক, গাইনি ও শিশু চিকিৎসক, ২১ টি ইউনিয়নের দায়িত্বপ্রাপ্ত মেডিক্যাল অফিসারসহ মোট ৩৫ টি পদ রয়েছে। এর মধ্যে বর্তমানে একজন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা , দুজন মেডিক্যাল অফিসার, দুজন শিশু চিকিৎসক, দুজন গাইনি বিশেজ্ঞসহ মোট ছয়জন কর্তব্যরত আছেন। তবে টিএইচওকে সর্বদা প্রশাসনিক ও দাপ্তরিক বিভিন্ন কাজে ব্যস্ত থাকতে হয়, তারপর রোগী দেখতে হয়। ফলে দুজন মেডিক্যাল অফিসার দিয়ে সামগ্রিক চিকিৎসাসেবা দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে বলে জানায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।
এ বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ সিরাজ উদ্দিন বলেন, ডাক্তার শূন্য হাসপাতালে বর্তমান কর্তব্যরত চিকিৎসক এবং রোগী উভয়েরই ভোগান্তী পোহাতে হচ্ছে। তবে আগামী দুই মাসের মধ্যে ডাক্তার নিয়োগ দেয়ার কথা রয়েছে। তখন এ সমস্যা কাটিয়ে উঠতে পারবেন বলে মন্তব্য করেন এই কর্মকর্তা।

প্রতিবেদনে আনিলা জাহান ও মনীষা মৌ।
প্রচারিত হয়েছে ১৫ মে (বুধবার) রেডিও মেঘনার সন্ধ্যার (৭টার) সংবাদে। শুধুমাত্র ৯৯.৯ এফএম এ।

Share.

Leave A Reply