মা আমার মা

0

চরফ্যাসন উপজেলার আলিগাঁও এলাকার শাহানূর বেগম। ৫৫ বছর বয়সে এসে ভিক্ষা বৃত্তি করছেন তিনি। তার সাথে কথা বলে জানা যায়, ৫ কন্যা সন্তান রেখে তার স্বামী মারা যান। তারপর এ বাড়ি সে বাড়ি ঘুরে, বিভিন্ন কাজ করে মেয়েদের পড়ালেখা শিখিয়ে বিয়ে দিয়েছেন এই মা। পরে অশ্রু ভরা নয়নে বলেন, দুই মেয়ে চাকরী করছে আর ৩ মেয়ে সুখে সংসার করছে। কিন্তু তার খোঁজ কেউ রাখেনা। দু’বেলা দু’মুঠো খাবারের জন্য মানুষের বাড়ি বাড়ি হাত পাততে হয় তাকে। আবার বয়স বাড়ার সাথে সাথে শরীরের অসুস্থতাও বেড়ে গেছে। আগের মত আর ঘুরতে পারেন না বলে জানান এই দুখিনী মা। অনেক স্বপ্ন ছিলো সন্তানরা পড়ালেখা শিখে চাকরী করে তাকে সুখে রাখবেন। কিন্তু সেই সন্তানদের কাছ থেকে অবহেলা, লাঞ্চনা, বঞ্চনা ছাড়া আর কিছু পান নি তিনি। আত্মীয়-স্বজনরা প্রথমে সাহায্য-সহযোগিতা করলেও এখন আর কেউ ফিরেও তাকায় না বলে জানান শাহানূর বেগম। তাই তার শেষ বয়সের ভরসা হয়ে দাঁড়িয়েছে ভিক্ষা বৃত্তি।

মায়েদের এমনসব গল্প নিয়ে আমাদের নিয়মিত অনুষ্ঠান ‘মা আমার মা’। অনুষ্ঠানটি প্রচারিত হয় প্রতি বুধবার সন্ধ্যা ৬.০০ টায়। শুনতে টিউন করুন শুধুমাত্র রেডিও মেঘনা ৯৯.০এফএম এ। অথবা লগইন করুন: www.radiomeghna.net

Share.

Leave A Reply