আজকের শিশু

0

চোখে-মুখে মায়াভরা হাসি আর কোমল হাতে কাঠ মিস্ত্রির কাজ করছে চরফ্যাসনের ছোট্ট হৃদয় (১২)। বাবা মারা গেছেন বছর কয়েক হলো। মা আর তার জীবন চালাতে বাধ্য হয়ে বেছে নিতে হয় এই কাঠ মিস্ত্রির কাজ। তার সাথে কথা বলে জানা যায় চতুর্থ শ্রেণিতে পড়া অবস্থায় তার মামা তাকে এ কাজ করতে দোকানে দিয়ে যায়। সারাদিন হাতুড়ি-বাটুল দিয়ে কাঠ ঠুকিয়ে নকশা করা, তাতে বার্নিস দিয়ে ঘষে-মেজে চকচকে করা হৃদয়ের কাজ। তবে চরফ্যাসন বাজারের এই কাঠের দোকানে মাস চারেক ধরে কাজ করলেও এখনো তাকে পেটে-ভাতে চলতে হয়। নতুন অবস্থায় কোনো বেতন না ধরলেও সম্পূর্ণ কাজ শিখে গেলে নির্দিষ্ট একটা বেতন পাবে বলে আমাদের জানায় হৃদয়।

হৃদয় বলে, তার বয়সের অন্যান্য ছেলেদের স্কুলে যেতে, খেলাধুলা করতে দেখলে তারও অনেক ইচ্ছে করে তাদের সাথে যোগ দিতে। কিন্তু বাবা মারা যাওয়ায় পড়ালেখা করার স্বপ্নটা আর কখনো পূরণ হবেনা বলে মেনে নিয়েছে সে। তবে সুযোগ পেলে আবারও পড়ালেখা করতে চায় হৃদয়।

শ্রমের সাথে জড়িত এমনসব শিশুদের গল্প নিয়ে রেডিও মেঘনার সাপ্তাহিক অনুষ্ঠান ‘আজকের শিশু’। উপস্থাপনা মেঘলা জাহান ও প্রযোজনা উম্মে নিশি। শুনুন প্রতি শুক্রবার বিকেল ৫:৪০টায়। শুধুমাত্র রেডিও মেঘনা ৯৯.০এফএম এ।

Share.

Leave A Reply