আমরা কিশোর কিশোরী

0

নবজাতক শিশুর সুস্থ-স্বাভাবিক ভাবে বেড়ে তুলতে মায়ের বুকের দুধের গুরুত্ব অনেক। কিন্তু শুধুমাত্র মায়ের বুকের দুধে কি পেট ভরে এমন চিন্তা গ্রামাঞ্চলের অনেক মানুষের মধ্যেই রয়েছে। তাই বাজারের কৃত্রিম দুধের প্রতি পরিবার বেশি গুরুত্ব দিয়ে থাকেন। কথা হয় চরফ্যাসন উপজেলার আমিনাবাদ উইনিয়নের মোরশেদা বেগমের (৪০) সাথে। তিনি বলেন, তার ভাইয়ের ছেলে জন্মের পর মায়ের বুকের দুধ খাওয়াতেন না। বাজারের কৃত্রিম দুধ খাওয়ানোর ফলে এক সময় শিশুটির পুষ্টিহীনতা দেখা দেয়। এছাড়াও প্রায় অসুন্থ হয়ে পড়তো। চিকিৎসকের পরামর্শ নিলে জানা যায় মায়ের বুকের দুধ না না খাওয়ানোর জন্য এমন সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে। এমন আরো ঘটনা আমাদের চারপাশে রয়েছে।

তাই এ ব্যপারে গাইনী বিশেষজ্ঞ নাজিয়া মাহমুদ জানায়, শিশু জন্মের পর ৬ মাস শুধুমাত্র মায়ের বুকের দুধ শিশুর সঠিক পুষ্টির পাশাপাশি জ্বর-সর্দিকাশি, হাঁপানি, ত্বকের সমস্যাসহ এ জাতীয় রোগে শিশুর আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা কমে। এছাড়াও ৬ মাস টানা মায়ের বুকের দুধ পান করালে গর্ভাবস্থায় মায়ের বাড়তি ফ্যাটও তাড়াতাড়ি ঝরে যায়। শারীরিক গঠনও ঠিক থাকে। তাই এসবের পাশপাশি মাকে পুষ্টিকর খাবার খেতে হবে। কারণ মায়ের কাছ থেকেই শিশু তার পুষ্টি নিয়ে বেড়ে উঠছে। শিশুকে বুকের দুধ খাওয়ানোর ফলে মায়ের স্তন ক্যান্সার এবং ডায়াবেটিকসের ঝুঁকি অনেক কমে যায়।

রেডিও মেঘনার ইস্যুভিত্তিক সাপ্তাহিক অনুষ্ঠান ‘আমরা কিশোর কিশোরী’। প্রচারিত হয় সোমবার সকাল ৯:২৫টায়। শুনতে টিউন করুন রেডিও মেঘনা ৯৯.০এফএমএ।

Share.

Leave A Reply